বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার সহজ উপায়

July 9, 2024

হাদিসে আছে, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ। ঘড়-বাড়ি, আমাদের চারপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকলে তা যে কেবল পরিবেশের জন্য ভালো তা নয়। এতে আমাদের শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকে।

আমাদের বাসা-বাড়ির সবচেয়ে অপরিষ্কার জায়গা হলো ওয়াশরুম বা টয়লেট। এই টয়েলেটে রোগ সৃষ্টিকারী কয়েক হাজার ধরনের জীবাণু বাস করে। আর আপনিই তাদের বংশ বিস্তারে ভূমিকা রাখছেন না তো? নিয়মিত ঘর-বাড়ি পরিষ্কারের পাশাপাশি ওয়াশরুম বা বাথরুম পরিষ্কার করছেন তো?

আজকের এই আর্টিকেলে বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করার সহজ ও সঠিক উপায় সম্পর্কে জানানো। অবশ্যই পুরোটা পড়বেন।

পরিষ্কার করার প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র

চলুন প্রথমেই জেনে নিই, টয়লেট বা বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করতে আমাদের কী কী উপকরণ প্রয়োজন হবে।

  • টাইলস ক্লিনার (ব্লিচিং পাউডার, বেকিং সোডা, ভিনেগার বা রেডিমেড ক্লিনার)
  • সুতি কাপড় বা স্পঞ্জ
  • মেঝে পরিষ্কারক ব্রাশ
  • স্প্রে বোতল
  • লেবুর রস

টাইলস পরিষ্কার করার লিকুইড নাম

বাজারে বিভিন্ন প্রকারের রেডিমেড টাইলস ক্লিনার কিনতে পাওয়া যায়। যা অল্প সময়ে এবং ক্লিনার তৈরির ঝামেলা এড়াতে চান তারা এসব টাইলস পরিষ্কার করার লিকুইড কিনে নিতে পারেন। এমন কয়েকটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের পণ্যের নাম হলো-

  • Fixol
  • Tufclean
  • Tara
  • Fabber

ফ্লোরের টাইলস দাগমুক্ত করা

নিয়মিত বাথরুম বা টয়লেট ব্যবহারের কারণে ফ্লোরের টাইলসে ময়লা জমে এবং তা থেকে কঠিন দাগের সৃষ্টি হয়। অনেকেই শুধু সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে রাখেন। তা টাইলস পরিষ্কার ও দাগমুক্ত রাখতে যথেষ্ট নয়।

বাথরুমের ফ্লোরের টাইলস পরিষ্কার করতে ও দাগমুক্ত রাখতে নিচে উল্লেখিত উপায়গুলোর যেকোনোটি অনুসরণ করতে পারেন।

  1. উপায়-১ঃ পরিষ্কার কাজ শুরুর আগে কুসুম গরম পানি দিয়ে টাইলস ভিজিয়ে নিন। এরপরে বাথরুমের আয়তন অনুযায়ী মেঝেতে পর্যাপ্ত ব্লিচিং পাউডার (হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড) ছিটিয়ে দিন। এটি ১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এরপরে কাপড়, স্পঞ্জ বা ফ্লোর পরিষ্কার করার ব্রাশ দিয়ে শক্ত হাতে ঘষে দাগ ও ময়লা তুলে ফেলুন। সর্বশেষ পরিষ্কার পানি দিয়ে টাইলস ধুয়ে ফেলুন।
  2. উপায়-২ঃ একটি পাত্রে সমপরিমান পরিষ্কার পানি ও ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এরপরে সেটি একটি স্প্রে বোতলে নিয়ে মেঝেতে স্প্রে করুন, বিশেষ করে যেসমস্ত স্থানে বেশি ময়লা ও দাগ আছে সেসব স্থানে বেশি করে স্প্রে করুন। ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করে একটি কাপড়, ব্রাশ বা স্পঞ্জ দিয়ে টাইলস ঘষে দাগ তুলে ফেলুন। তারপরে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
  3. উপায়-৩ঃ প্রয়োজনমাফিক বেকিং সোডা ও পরিষ্কার পানি নিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন। এটি যেন অনেক বেশি ঘণ বা অনেক বেশি পাতলা না হয়। এই পেস্ট একটি স্পঞ্জে বা কাপড়ে নিয়ে মেঝের টাইলসে লাগান। এরপরে সেই স্পঞ্জ, কাপড় বা একটি ব্রাশ দিয়ে ভালোভাবে শক্ত হাতে ঘষে দাগ ও ময়লা তুলে ফেলুন। এক্ষেত্রে দুটি টাইলস ব্লকের মাঝের অংশে পেস্ট লাগিয়ে অব্যবহৃত টুথব্রাশ দিয়ে ঘষতে পারেন।

দেয়ালের টাইলস পরিষ্কার

শুধু যে বাথরুমের মেঝের টাইলস ময়লা বা দাগ হয় তা নয়, গোসলের পানির ছিটা লেগে দেয়ালের টাইলস ময়লা ও দাগ হয়ে যায়। দেয়ালের টাইলস পরিষ্কার করতে বাজারের রেডিমেড ক্লিনার ব্যবহার করতে পারেন অথবা ঘরোয়া পদ্ধিতে তৈরি ক্লিনার ব্যবহার করতে পারেন।clean The wall tiles

উপরে দেখানো ৩টি পদ্ধতিতে যেভাবে ক্লিনিং এজেন্ট তৈরি করেছি সেভাবেই তৈরিকৃত ক্লিনার দিয়েই বাথরুমের দেয়ালের টাইলস পরিষ্কার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে অতিরিক্ত একটি উপকরণ ব্যবহার করতে পারেন, তা হলো লেবুর রস।

লেবুর রস ব্যবহার করলে এটি যেমন টাইলস পরিষ্কার করে উজ্জ্বলতা বাড়াবে, তেমনি বাথরুমের ভেতরের দূর্গন্ধ দূর করে সুন্দর একটি গন্ধ তৈরি করবে।

টাইলসের খাঁজ থেকে ময়লা ও শ্যাওলা পরিষ্কার

দীর্ঘদিন টাইলস পরিষ্কার না করার কারণে এবং পানিতে আর্সেনিক থাকার কারণে টাইলস ব্লকের সংযুক্ত স্থানে ময়লা ও হলুদ দাগ পড়ে যায়। আর যেসব অংশে দীর্ঘক্ষণ পানি জমে থাকে সেসব অংশে শ্যাওলা জমে যায়।

এসব অংশের ময়লা, দাগ ও শ্যাওলা পরিষ্কার করতে বেকিং সোডা ও পানি দিয়ে তৈরি মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন। সেই সাথে লেবুর রস ব্যবহার করা যায়। লেবুর রস ব্যবহার করতে এটি হলদে ভাব দূর করে, টাইলসের খাঁজে উজ্জ্বলতা আনবে।

আমাদের পরামর্শ থাকবে বাথরুম বা টয়লেট ব্যবহারের পরে যেন সেখানে দীর্ঘসময় পানি জমে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখবেন। নির্মাণজনিত ত্রুটির কারণে যদি পানি জমে তাহলে তা নিজ উদ্যোগে পরিষ্কার করে রাখবেন। এটি করলে টাইলসে শ্যাওলা তৈরি হবে না।

সারকথা

একটি কথা আছে- প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম। এই আর্টিকেলে আমরা জানিয়েছি, কীভাবে বাথরুমের টাইলস পরিষ্কার করবেন তার সহজ ও সঠিক উপায়। তবে পরামর্শ থাকবে যে, বাথরুম নিয়মিত পরিষ্কার করবেন যাতে শক্ত ও জেদি দাগ ও ময়লা সৃষ্টি হওয়ার সুযোগ না পায়। আপনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে লেখাটি শেষ করছি। আপনার দিনটি শুভ হোক!

Subscribe
Notify of
guest

0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments